Net Content

No enough Net Content

বাংলাদেশে নেট কন্টেন্টের অপ্রতুলতা ও কোটি আবাল পাঠকগোষ্ঠী

বাংলাদেশে নেটের স্পীড বাড়ানোর কথা বলা হয়, নেটের দাম কমানোর কথা বলা হয় কিন্তু ওয়েব কন্টেন্ট বাড়ানোর ব্যাপারে কেউ কাজ করতে চায় না। নেট থেকে শুধু নিয়েই যাবেন নেটের রিসোর্স সমৃদ্ধ করতে কিছু করবেন না তা তো হয় না। গুগলে সার্চ করে হাজার হাজার তথ্য নিবেন, নিজে একটি তথ্য যোগ করতে কাজ করবেন না এটা তো চরম স্বার্থপরতা ও অকৃতজ্ঞতা।

কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য বাংলাদেশে মানসমৃদ্ধ নেট কন্টেন্ট নেই বললেই চলে। যা আছে তা দিয়ে খুব বেশীদিন চলা যায় না। আমি মাঝে মাঝে মাথায় হাত দিয়ে বসে থাকি বাংলাদেশে কিছু পড়ার, দেখার বা শোনার থাকে না।

এক একজন মানুষের রুচি, চাহিদা, দর্শন ভিন্ন ভিন্ন। বাংলাদেশে এখন কন্টেন্ট বলতে প্রধান ২/৩ টি পত্রিকা সাংবাদিক দিয়ে নিউজ সংগ্রহ করে, কয়েকশত পত্রিকা সেটা ভিন্ন বা একই শিরোনামে কপি পেস্ট করে। ফেসবুক পাঠক আবার সেগুলো শেয়ার করে। এইত কন্টেন্ট। আর আছে কিছু টেক, কিছু সোস্যাল ব্লগ। এর বাইরে মৌলিক লেখা কোথায় বাংলাদেশে?

যাদের ফেসবুক একাউন্ট আছে তাদের সবার একটা করে ব্লগ থাকতে পারে। ব্লগার বা ওয়ার্ডপ্রেসে তো ফ্রি ব্লগ খোলা যায়। কিন্তু সবাই ব্যস্ত ফেসবুকে লিখতে ” আজ সারাদিন খুব বোরিং লাগছে … “। কমেন্ট ও পড়ছে শত শত। এই যে ফালতু সময়ের অপচয় এর চেয়ে নিজে ওয়েবে কিছু কন্টেন্ট সৃষ্টি করা যায়।

আপনি হয়ত চমকে যাবেন “মা” দিয়ে গুগলে সার্চ দিলে এমন কিছু অশ্লীল সাইট/কন্টেন্ট সামনে চলে আসবে যা মা শব্দটির জন্য অবিশ্বাস্য। এটা কেন? কারন মা নিয়ে ভাল ভাল কোন কন্টেন্ট নেই।

সরকারী প্রায় সব দপ্তরের সাইট আছে, কিন্তু সেই একবারই হয়ত করা হয়েছে, কোন আপডেট নেই। অনেক সাইটের আবার পৃষ্ঠার পর পৃষ্ঠা আন্ডার কনস্ট্রাকশান। প্ল্যানারদের ইন্সটিটিউশান বি আই পি’র সাইটে প্রায় সব পেজ আন্ডার কনস্ট্রাকশান। এই হল অবস্থা।

বাংলাদেশের কোম্পানি, প্রতিষ্ঠানগুলো আবার নামকাওয়াস্তে একটা ওয়েবসাইট রেখেছে কিন্তু কোন তথ্য নেই, নেই আপডেটও। মনে রাখবেন, আগামীদিনে একটি মানসম্মত ও তথ্যসমৃদ্ধ ওয়েবসাইট না থাকলে ব্যবসা বলেন, নীতি বলেন, সরকার বলেন আর প্রকল্প বলেন কেবল পিছাতেই থাকবে। এখন সমৃদ্ধির মূল হাতিয়ার তথ্য, বিশ্বজুড়ে। এই তথ্য যদি পর্যাপ্ত না হয় তবে বাংলাদেশও পিছিয়ে যাবে অন্যদের থেকে।

এখন বলি, আমার মত শত শত কামলা ওয়েবের টেকনিক্যাল দিক দেখার জন্য জান পরান দিয়ে কাজ করছে, কন্টেন্ট লেখার দায়িত্বও কি আমাদের? দেখি তো মৌলিক কন্টেন্ট সে আমাদের মতই কিছু মানুষ লেখে। আপনার যদি মনে হয় শুধু পড়ে যাওয়াই কাজ, মন্তব্য করাই কাজ তবে আপনি সারাজীবন ভোদাই হয়ে থাকবেন এবং কোম্পানিগুলোর কাছে সবসময় আবাল কাস্টমার থাকবেন, আপনাদের টাকায় ব্যবসা করে অন্যরা ধনী হবে, আপনি হাবার মত শুধু চেয়েই থাকবেন আর নিত্য নতুন বিজ্ঞাপনের মদ গিলবেন, নিজে কখনো কিছু করতে পারবেন না। মিথ্যা কনেন্ট বা ছবি দেখে নাচবেন কিন্তু টেক্সট বা ইমেজ সার্চ দিয়ে সেই লেখা বা ছবির সত্যতা জানার মুরোদ আপনার হবে না এ জীবনে।

Related Posts

Gratefulness of Life

মানুষ মানুষের জন্য ভাবে বা কারো স্বপ্নের পাশে দাঁড়ায় এটাই তো মানুষের সৌন্দর্য্য

প্রায় ১০ বছর আগের কথা। আমার তখন কোন ক্রেডিট কার্ড ছিল না, এখনো নেই। একটিRead More

Human and Dog Friendship

এই প্রাণীটাকে ব্যাখ্যা করা সহজ, মানুষকে ব্যাখ্যা করা সম্ভব না

মানব সভ্যতার সূচনালগ্ন থেকে মানুষের সঙ্গে কুকুরের বন্ধুত্ব। ভাই, বোন, আত্মীয়, স্বজন, পাড়া, প্রতিবেশী, স্বধর্মী,Read More

Armenian Genocide and Turkey

আদতে তিনি একজন ভন্ড বলেই প্রতীয়মান হবেন ইতিহাসে !

এরদোয়ানের কথায় লাফানোর কিছু নেই। সে স্বার্থ ছাড়া চলে না, কোন কথাও বলে না। তারRead More

Comments are Closed