Black Seed

Black Seed

জেনে নিন কালোজিরার স্বাস্থ্য উপকারিতা

কালোজিরা খেলে হার্ট, ফুসফুস, শ্বাসনালী ভালো থাকে। করোনায় তারাই রিকোভার করবে যাদের এই তিনটি অঙ্গ বেশ মজবুত। ভিটামিন সি আর ডি যাদের পর্যাপ্ত থাকবে তারা করোনা ভাইরাসকে মোকাবেলা করতে পারবে ভালো করে। এ কারণেই প্রচুর পরিমাণে লেবু খেতে বলা হচ্ছে। ডিম, মাংস ইত্যাদি। তবে এগুলোর কোনটাই করোনার ভ্যাক্সিন বা ঔষধ নয়। কিন্তু কালোজিরাকে রীতিমত ভ্যাক্সিন বানিয়ে দেয়া হচ্ছে। কিছু মানুষ এটি করছেন সুচতুরভাবে। এটি সাধারণ মানুষের সঙ্গে মহামারীর সময় সবচেয়ে বাজে প্রতারণার একটি।

ব্যাপারটা এমন করে প্রচার করছে তারা যে কালোজিরার ঔষধী গুণ মানুষ এই ১৫০০/২০০০ বছর আগে জানতো না। বিভিন্ন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন থেকেই জানা যায় মানুষ সভ্যতার সূচনালগ্ন থেকেই কালোজিরার ঔষধিগুণ সম্পর্কে জানতো। মিশরের ফারাওরা মানে ফেরাউনরা এই কালোজিরা ব্যবহার করতো। ফেরাউন রাজা তুতেখামেনের সমাধিতে কালোজিরার অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছিল। এই তুতেখামেন মারা গেছেন এখন থেকে আরও প্রায় ৩৩৫০ বছর আগে। তারও ৩০০ বছর আগে তুর্কি অঞ্চলের মানুষের এই কালোজিরা ব্যবহারের প্রমান পাওয়া যায়। সুতরাং সব প্রচলিত জ্ঞানই নতুন করে জানানো মানে এই নয় যে মানুষ আগে জানতো না।

পার্সিয়ান ফিজিশিয়ান ইবনে সিনা তার বই Canon of Medicine এ লিখেছেন কালোজিরা Shortness of breath (SOB), বা dyspnea সারায়। সুতরাং কালোজিরার ঔষধি গুণ নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। কিন্তু এটা করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নয় বা করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি দিতে পারে না।

কালোজিরার পুষ্টি উপাদান

কালোজিরা বিভিন্ন পুষ্টি উপাদানে সমৃদ্ধ। এতে রয়েছে অ্যামিনো অ্যাসিড, প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, ফাইবার, এসেনশিয়াল ফ্যাটি এসিড, ভিটামিন এ, বি১, বি২, সি এবং নায়াসিন সহ মিনারেলস, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, আয়রন, ম্যাঙ্গানিজ, সেলেনিয়াম এবং জিঙ্ক। এসব পুষ্টি উপাদান আমাদের দেহের জন্য অপরিহার্য।

কালোজিরার স্বাস্থ্য উপকারিতা

কালোজিরা অনেক ঔষধি গুণ সমৃদ্ধ একটি বীজ। এসব ঔষধি গুণের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হচ্ছে:
– অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল
– অ্যান্টি-ফাংগাল
– অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি
– অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট
– অ্যান্টিসপাসমোডিক
– অ্যান্টি-ভাইরাল
– অ্যান্টি-হাইপারটেনসিভ
– হাইপোটেন্সিভ
– ইনসুলিন সেন্সটাইজিং
– বেদনানুভূতিনাশক

আসুন এবার এই নানা পুষ্টিমানে গুণান্বিত এই কালোজিরার স্বাস্থ্য উপকারিতা নিয়ে জানা যাক

– ক্যান্সার ঝুঁকি কমায়
– লিভার ভালো রাখে
– হৃদযন্ত্র ভালো রাখে
– ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে
– অ্যালার্জি ও অ্যাজমা উপশম
– ওজন কমাতে সাহায্য করে
– হজম শক্তি বর্ধক
– উচ্চ রক্তচাপ হ্রাস
– রোগ প্রতিরোধক
– ফাংগাল সংক্রমণ রোধ

সতর্কীকরণঃ গর্ভাবস্থায় ও দুই বছরের কম বয়সের বাচ্চাদের কালোজিরার তেল খাওয়ানো উচিত নয়। তবে বাহ্যিক ভাবে ব্যবহার করা যাবে।

শুধু কালোজিরা নয়, এমন শত শত উদ্ভিদ, খাদ্য আছে যা কোন না কোনভাবে উপরের এই কাজগুলো করে বা এর চেয়ে কম বা বেশী করে।

Related Posts

Learning Evolution is Important

বিবর্তনবাদের প্রাথমিক পাঠ না থাকলে মানুষের মানবিক হওয়া সহজ হবে না

১৯০০ সালের শুরুতেও পৃথিবীর জঙ্গলে বাঘ ছিল প্রায় ১ লক্ষ। ১৯ শতাব্দীর পুরোটা ও এখনকারRead More

Human Civilization

প্রশ্ন করতে শিখুন, বিনা প্রশ্নে সব কিছুকে মেনে নেয়া মানে সেটা অন্ধ বিশ্বাস !

২৫-৩০ লক্ষ বছর আগে ৪ পেয়ে এ্যাপ থেকে মানুষে বিবর্তনের ধারায় ২ পায়ে দাঁড়ানোর পর্যায়েRead More

Idleness for innovation

রাজার আলসে না হলে সৃজনশীল কিছু করা অনেক কঠিন হয়ে যায়

রাজার আলসে বলে একটা কথা আছে। খুব বড় কোন কিছু করতে গেলে অলস মানুষের দরকারRead More

Comments are Closed